মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই হবে প্রার্থীর মূল্যায়ণ, অনিয়ম আর আর্থিক সংশ্লেষ কঠোর হস্তে হবে দমন

  

                                       মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই হবে প্রার্থীর মূল্যায়ণ
                                      অনিয়ম আর আর্থিক সংশ্লেষ কঠোর হস্তে হবে দমন

 

সম্মানিত কুমিল্লাবাসী,
আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ সকাল ০৯.০০ ঘটিকায় কুমিল্লা জেলা পুলিশ লাইন্স মাঠে কুমিল্লা জেলার স্থায়ী বাসিন্দাদের মধ্য হতে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কনস্টেবল (পুরুষ ও মহিলা) পদে প্রার্থী বাছাই করা হবে। একে কেন্দ্র করে এক ধরণের অসাধু লোক ও দালাল চক্র বিভিন্ন ধরণের বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে পারে। সম্পূর্ণ মেধা ও যোগ্যতার মানদন্ডে উত্তীর্ণ প্রার্থীদেরকেই বাছাই করা হবে। এক্ষেত্রে কোনো ধরণের অনিয়ম, দুর্নীতি, তদবীর ও আর্থিক সংশ্লেষ এর কোনো সুযোগ নেই। সুস্পষ্টভাবে বলা হচ্ছে এ ধরণের কর্মকান্ডের সংগে যারা জড়িত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পুলিশের কোনো সদস্য যদি অনিয়ম কিংবা আর্থিক সংশ্লেষের সংগে জড়িত হয় সংগে সংগে পুলিশ সুপার, কুমিল্লাকে জানান। অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যে কোনো অনিয়ম, দুর্নীতি প্রতিরোধে নিজে সচেষ্ট থাকুন অন্যকে সচেতন করুন। য্যেগ্য ও মেধাবী প্রার্থীরা পুলিশের গর্বিত ইউনিফর্মে আগামী দিনে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত হবে। এ প্রত্যাশা পূরণে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।


নিয়োগ সংক্রান্তে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাদিঃ
    ৩১-০৮-২০১৬ ইং তারিখে সাধারণ প্রার্থীদের বয়স ১৮-২০ বছর, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কোটায় ১৮-৩২ বছর, মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনীদের ১৮-২০ বছর হতে হবে।
    শিক্ষাগত যোগ্যতা : এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় (নূন্যতম জিপিএ ২.৫) উত্তীর্ণ হতে হবে।
    শারীরিক মাপ – সাধারণ প্রার্থী (পুরুষ) উচ্চতা নূন্যতম ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, বুকের মাপ ৩১-৩৩ ইঞ্চি, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় (পুরুষ) উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, বুকের মাপ ৩০-৩১ ইঞ্চি, উপজাতি কোটা (পুরুষ) উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি এবং বুকের মাপ ৩১-৩৩ ইঞ্চি হতে হবে। মহিলা প্রার্থীদের উচ্চতা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি।
    প্রার্থীগণকে পুলিশ সুপার কুমিল্লা জেলা এর অনুকুলে পরীক্ষার ফি ১০০/- টাকা “১-২২১১-০০০০-২০৩১” নম্বর কোডে ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে জমাপূর্বক চালানের কপি আবেদন পত্রের সংগে সংযুক্ত করতে হবে। কোন প্রকার ব্যাংক ড্রাফট/পোষ্টাল অর্ডার/পে-অর্ডার গ্রহণযোগ্য হবে না।
    শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সনদপত্র/সাময়িক সনদপত্রের মূল কপি সংগে আনতে হবে।
    সর্বশেষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তৃক প্রদত্ত চারিত্রিক সনপত্রের মূল কপি সংগে আনতে হবে।
    জেলার স্থায়ী বাসিন্দা/জাতীয়তার প্রমাণ স্বরুপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/সিটি কর্পোরেশন বা পৌরসভার মেয়র/ওয়ার্ড কমিশনার (যা প্রযোজ্য) এর নিকট হতে স্থায়ী নাগরিকত্বের সনদপত্রের মূল কপি।
    প্রার্থীর জাতীয় পরিচয় পত্রের মূল কপি। যদি প্রার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকে সেক্ষেত্রে প্রার্থীর পিতা/মাতার জাতীয় পরিচয় পত্রের মূল কপি সংগে আনতে হবে।
    প্রথম শ্রেণীর সরকারী গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত ৪ (চার) কপি সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ছবি ।
    মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান/সন্তানের সন্তানদের ক্ষেত্রে প্রার্থীদের পিতা/মাতা/পিতামহ(দাদা)/মাতামহের(নানা) নামে ইস্যুকৃত মুক্তিযোদ্ধা সনদপত্রে মূল কপি, যাহা যথাযথভাবে উপর্যূক্ত কর্তৃপক্ষ (মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং মাননীয় মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী) কর্তৃক স্বাক্ষরিত ও প্রতিস্বাক্ষর থাকতে হবে।
    মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা হলে প্রার্থী যে মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা এই মর্মে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/সিটি কর্পোরেশন বা পৌরসভার মেয়র/ওয়ার্ড কমিশনার(যা প্রযোজ্য) কর্তৃক প্রদত্ত প্রত্যয়নপত্রের মূলকপি। মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের সন্তানদের ক্ষেত্রে ১ম শ্রেণীর ম্যাজিষ্ট্রেট এর নিকট সম্পাদিত অ্যাফিডেফিট অথবা আদালত কর্তৃক প্রদত্ত সাকসেশন সার্টিফিকেট উপস্থাপন করতে হবে।
    পুলিশ পোষ্য কোটার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে প্রার্থীর পিতা/মাতার নাম, পদবী (বিপি নম্বরসহ) উল্লেখপূর্বক কর্মরত জেলা/ইউনিটের প্রধান কর্তৃক প্রত্যয়নপত্রের মূল কপি, যদি পুলিশ পোষ্য কোটায় কোন প্রার্থীর পিতা/মাতা অবসর/মৃত্যুবরণ করে থাকেন, তবে এমন প্রার্থীর ক্ষেত্রে পিতা/মাতার সর্বশেষ কর্মস্থলের ইউনিট প্রধান কর্তৃক প্রত্যয়নপত্রের মূল কপি সংগে আনতে হবে।
    আনসার ও ভিডিপি কোটার প্রার্থীদের ৪২ (বিয়াল্লিশ) দিন মেয়াদী আনসার মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপ্তির মূল সনদপত্র থাকতে হবে।
    এতিম কোটার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে সরকারি ও সরকারি নিবন্ধনপ্রাপ্ত এতিমখানার প্রধান কর্তৃক প্রদত্ত প্রত্যয়নপত্র/প্রশংসাত্রপত্র এর মূল কপি, যাতে প্রার্থী এতিম এবং প্রার্থীর পূর্বকালীন স্থায়ী ঠিকানা এবং এতিমখানা নিবাসের নিবন্ধনকৃত ব্যক্তিগত নম্বরও উল্লেখ থাকতে হবে।
    উপ-জাতীয় কোটার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসক/উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক প্রদত্ত সনদপত্রের মূল কপি সংগে আনতে হবে।
    সরকারি/আধা-সরকারি/স্বায়ত্বশাসিত সংস্থায় চাকুরীরত প্রার্থীদের অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষের পূর্বানুমতি গ্রহণ করতে হবে।

আপনাদের সহযোগিতা প্রত্যাশায়

মো: শাহ আবিদ হোসেন
পুলিশ সুপার, কুমিল্লা।


Read 2900 times